OrdinaryITPostAd

অনলাইনে শপিং করার কয়েকটি বিশ্বস্ত ওয়েবসাইট এবং পেজ

আপনি যদি ঘরে বসে প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে চান সেক্ষেত্রে এই পোস্টটি আপনার জন্য। এই পোস্টটিতে অনলাইনে কিভাবে বিশ্বস্ত সাইট থেকে শপিং করতে পারবেন সে সম্পর্কে আলোচনা করা হবে।

Online shopping

বর্তমানে মানুষ অনলাইনে নির্ভর হয়ে পড়ছে। অনলাইনে বিশ্বস্ত হয়ে পড়ছে মানুষ। তাই অনলাইনে শপিং করার জন্য বিশ্বস্ত ওয়েবসাইট সম্পর্কে আজকে আমি আলোচনা করব যা আপনার অনলাইনে শপিং করার জন্য ব্যাপক কাজে দেবে। আশা করি আপনি সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়বেন। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

সূচিপত্রঃ অনলাইনে শপিং করার কয়েকটি বিশ্বস্ত ওয়েবসাইট এবং পেজ

অনলাইন শপিং বলতে কী বোঝায়

অনলাইন শপিং হচ্ছে একটি ইংরেজি শব্দ যার বাংলা ই বাণিজ্য বা ইন্টারনেটের মাধ্যমে যে ব্যবসা-বাণিজ্য করা হয় তাকে বোঝাই। ইলেকট্রনিক বাণিজ্যে গ্রাহকরা সরাসরি বাসায় বসে ওয়েব ব্রাউজার বা মোবাইল ফোনের অ্যাপ ব্যবহার করে ক্রেতার কাছ থেকে পণ্য ক্রয় করতে পারেন। অনলাইনে ইন্টারনেট ব্রাউজিং এর মাধ্যমে বর্তমানে প্রায়ই প্রতিটি মানুষই অনলাইনে শপিং করছে বা কেনাকাটা করছে। 

ক্রেতা ঘরে বসেই সেই পণ্যের দাম পরিশোধ করতে পারে অনলাইন পেমেন্টের মাধ্যমে। অনলাইনে শপিং করার মাধ্যমে একজন ক্রেতার সময় ও শ্রম দুইটাই কমে যায়। ঘরে বসেই ইন্টারনেটের মাধ্যমে যে কেনাবেচা হয় তাকেই অনলাইনে শপিং বলে। আশা করি আপনি অনলাইন শপিং সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন। চলুন তাহলে এবার জেনে নেওয়া যাক অনলাইন শপিং এর সুবিধা ও অসুবিধা সম্পর্কে।

অনলাইন শপিং এর সুবিধা ও অসুবিধা

বর্তমান যুক্তি হচ্ছে তথ্য প্রযুক্তির যুগ, প্রায় সকল মানুষই বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারে। তবে এক্ষেত্রে কিছু ব্যতিক্রম মানুষও রয়েছে যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারে না। ছোট থেকে শুরু করে বুড়ো বয়-সবজি মানুষ বর্তমানে ইন্টারনেট চালাচ্ছে ফোন চালাচ্ছে। মানুষ ফোনকে বেশি সময় দিচ্ছে। তাই মানুষের এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মানুষ অনলাইনে বিজনেস স্টার্ট করার চিন্তা এবং তা পূরণ করে।

আরো পড়ুন ঃ অনলাইন শপিং কিভাবে করতে হয় 

বর্তমানে প্রায় অনেক মানুষ অনলাইনের মাধ্যমে তাদের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো কিনতে পারছে। বাসার বাইরে না গিয়ে ঘরে বসেই প্রয়োজনীয় দ্রব্য পেয়ে যাচ্ছে। আর এই অনলাইনে কেনাকাটার ক্ষেত্রে অনেক সুবিধা ও অসুবিধা হয়ে থাকে চলুন সেগুলো নিয়ে বিস্তারিতভাবে জেনে নেই।

অনলাইনে শপিং এর সুবিধাঃ

অনলাইনে ব্যবসা বা শপিং করা অনেক সুবিধা রয়েছে। অনলাইনে শপিং করার জন্য নির্দিষ্ট কোনো সময় প্রয়োজন হয় না, আপনি চাইলে ২৪ ঘন্টার মধ্যে যে কোন সময় অনলাইনে শপিং করতে পারবেন যা একটি আপনার জন্য অনেক হেল্পফুল একটি প্রসেস। বিভিন্ন কাজের জন্য যেমন একটু সময় নির্ধারণ করতে হয় তবে অনলাইন শপিং এ তা উল্টো আপনার ইচ্ছামত আপনার সময় মত আপনি কেনাকাটা করতে পারবেন।

সরাসরি সবথেকে কেনার চাইতে অনলাইনে কিনলে আপনি তুলনামূলক কিছু টাকা কমে কিনতে পারবেন। আর অনলাইনে বিভিন্ন অকেশনের সময় বিভিন্ন অফার দিয়ে থাকে যা আপনাকে। তাই ঘরে বসে শপিং করার মত শান্তি যানজট মুক্ত, শব্দ দূষণমুক্ত ভাবে কেনাকাটা করতে পারেন যা একটি অনেক বড় সুবিধা। এবার তাহলে জেনে নেওয়া যাক অনলাইনে শপিং এর অসুবিধা সম্পর্কে।

অনলাইনে শপিং এর অসুবিধাঃ

আপনি সুবিধা পাবেন কিন্তু অসুবিধা থাকবে না এটা কোনভাবে হয় না। যা সুবিধার পেছনে একটি অসুবিধার কারণ লুকিয়ে থাকে। আপনার জীবনে যদি অসুবিধা না থাকে তাহলে আপনি সুবিধাটা উপভোগ করতে পারবেন না। জীবনেচলার পথে যেমন অসুবিধা রয়েছে তেমনি অনলাইনে শপিং করার ক্ষেত্রে কিছু অসুবিধা রয়েছে, যা নিচে তুলে ধরা হলো 

অনলাইনে শপিং এর অসুবিধার মধ্যে সবচেয়ে বড় অসুবিধা হচ্ছে অনলাইনে প্রোডাক্ট অর্ডার করার পরেও ঠিক টাইমে অর্ডারটা ডেলিভারি হয় না। এর জন্য প্রতিটা কাস্টমারই বিরক্ত হয়ে থাকে। অনলাইনে শপিং করার পর দেখা যায় পণ্যের কোয়ালিটি যেমন দেখায় তেমন পাঠায় না। অনলাইনে শপিং করতে গিয়ে মানুষ প্রতারিত হয়।

এটার মূল কারণ মানুষ অনলাইনে শপিং করার বিশ্বস্ত ওয়েবসাইটে না কেনাকাটা করে ছোটখাটো নতুন একটি ওয়েবসাইটে গিয়ে কেনাকাটা করে। দেখা যায় অনলাইন অনেক ছোটখাটো ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে বেচে বিক্রির নামে স্ক্যাম করা হয়। তাই অনলাইন শপিং এর বড় সমস্যা স্ক্যাম বা দালাল। আশা করি আপনি অনলাইনে শপিং এর অসুবিধা সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

অনলাইনে শপিং করার ওয়েবসাইট লিস্ট

ইন্টারনেটের যুগে মানুষ অনলাইনে কেনাকাটার প্রতি বেশি আসক্ত হয়ে পড়ে। মানুষ দোকানে গিয়ে নেয়ার চাইতে অনলাইনে বেশি কেনাকাটা করছে। যারা অনলাইনে শপিং করে কিন্তু ওয়েবসাইট সম্পর্কে ধারণা নাই তারা প্রতারণার শিকার হয়ে থাকে। তাই নিচে দশটি অনলাইন শপিংয়ের কথা তুলে ধরব যেখানে কোন স্ক্যানের শিকার হবে না। চলুন তাহলে দেখে নেই অনলাইন শপিং করার ওয়েবসাইট লিস্টঃ

লিস্ট সমূহঃ

  1. দারাজ
  2. চাল ডাল
  3. রকমারি
  4. সাজগোজ
  5. ফুডপান্ডা
  6. বিডি শপ
  7. অথবা
  8. আজকের ডিল

উপরে যে কয়েকটি ওয়েবসাইটের কথা বলেছি চলুন এগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেই।

দারাজ

বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট হচ্ছে দারাজ। বাংলাদেশ অনলাইন শপিং এর বিপ্লব ঘটে মূলত দারাজ এর মাধ্যমে। দারাজ তার যাত্রা শুরু করে ২০১২ সাল থেকে আর এটি শুরু হয় পাকিস্তানের। দারাজ মূলত ২০১৫ সাল থেকে বাংলাদেশ ও মায়ানমারের ব্যবসা শুরু করে। দারাজ এ মূলত আমাদের জীবনে যত প্রয়োজনীয় ড্রেস ফ্যাশন প্রোডাক্ট মোবাইল ইলেকট্রনিক্স পণ্যসহ সবকিছুই পাওয়া যায়।

আর দারাজের মাধ্যমে খুব সহজেই আপনি অনলাইনে কেনাকাটা করতে পারবেন। দারাজ বিভিন্ন সময় বিভিন্ন অফার দিয়ে থাকে এ অফার গুলোর মাধ্যমে আপনি কেনাকাটা করতে পারেন। আপনি যদি দারাজ থেকে পণ্য ক্রয় করতে চান তাহলে গুগলে গিয়ে দারাজ অনলাইন শপিং লিখে সার্চ দিলেই তাদের ওয়েবসাইট পেয়ে যাবেন। আশা করি আপনি বুঝতে পেরেছেন।

চাল ডাল

চাল ডাল ডট কম মূলত মুদি দোকানের মত। মুদি দোকান গুলোতে যতগুলো আইটেম রয়েছে তেমনি চাল ডাল ডট কম সেই সকল পণ্য রয়েছে যা আপনি অনলাইনের মাধ্যমে কিনতে পারবেন। চাল ডাল ডট কম মূলত ২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়।

চাল ডাল ডট কম মূলত তাদের নিজস্ব ওয়েবসাইট ও নিজস্ব মোবাইল অ্যাপ থেকে বেচা বিক্রি করে। আপনিও চাইলে এখান থেকে আপনার ঘরের জন্য মুদি দোকানের যত প্রয়োজনীয় জিনিস আছে তা পার্সেস করতে পারেন। আশা করি আপনি বুঝতে পেরেছেন।

রকমারি

বর্তমানে একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হচ্ছে রকমারি। ২০১২ সালে রকমারি ডট কম তার যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে অনেক জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বর্তমানে হিউজ পরিমান বই কেনাবেচা করা হয় অনলাইনের মাধ্যমে। বর্তমানে বয়ে বিক্রি করার পাশাপাশি বিভিন্ন রকমের টিউটোরিয়াল ভিডিও অডিও বুক ক্রিয়া সামগ্রী শিক্ষা উপকরণসহ বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করছে তারা।

আর আপনি চাইলে রকমারি থেকে খুব সহজেই বই কিনতে পারবেন। আপনি বই পাগল হয়ে থাকলে রকমারি ডট কমে গিয়ে একটি বই নিতে পারেন খুব সহজে, আর দুই থেকে তিন দিনের মধ্যে ডেলিভারি কনফার্ম হয়ে যায়। আশা করি আপনি বুঝতে পেরেছেন।

ফুডপান্ডা

ফুড পান্ডের কথা বললেই হয়তো আপনার মধ্যে রোমাঞ্চকর কিছু খাবারের কথা মনে পড়ে যাবে। হ্যাঁ আপনি ঠিক হয়ে ধরেছেন ফুড পান্ডা হচ্ছে একটি খাবার ডেলিভারি ওয়েবসাইট। ফুডপান্ডা খুব অল্প সময়ের মধ্যে আপনার কাছে আপনার প্রিয় খাবারটি হাতের কাছে নিয়ে এসে দেয়।

হাজার হাজার রেস্টুরেন্ট আপনার হাতের মুঠোয় নিয়ে আসে। আপনি চাইলে ফুড পান্ডাতে কাজেও করতে পারেন। ডেলিভারি ম্যান হিসেবে দিনে পাঁচ থেকে ছয় ঘন্টা কাজ করে ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা ইনকাম করতে পারেন।

বিডি শপ

বিডি সব খুব একটা পুরাতন অনলাইন প্লাটফর্ম না হলেও খুব অল্প সময়ের মধ্যে এটি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এই ওয়েবসাইটে এফিলিয়েট সিস্টেম শুরু করে ব্যাপক সাড়া জেগে তুলেছে। এখানে মূলত ইলেকট্রনিক পণ্য বেচা বিক্রি করা হলেও বর্তমানে এর পরিধি অনেক বড় করে তুলছে। আপনি চাইলে তাদের ওয়েবসাইটে এফিলিয়েট করে ইনকাম করতে পারবেন। আশা করি আপনি বুঝতে পেরেছেন।

আজকের ডিল

এটি একটি পুরাতন অনলাইন শপিং প্ল্যাটফর্ম। এটির যাত্রা শুরু হয় ২০১১ সালের ২০ই নভেম্বর থেকে। যা বাংলাদেশের অনলাইন শপিং এর শুরুর দিকে একটি প্ল্যাটফর্ম। আজকের ডিলের মূলত জব সাইট প্ল্যাটফর্ম এর অঙ্গ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত।

আরো পড়ুন ঃ জ দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম অর্থসহ ( ১০০০+ নাম )

তাছাড়া আজকের ডিল ওয়েব সাইটের মূল পণ্যগুলো হচ্ছে ছেলেদের ড্রেস, মেয়েদের ড্রেস, ছেলেমেয়ে উভয়ের ফ্যাশন কালেকশন। গেজেটস মোবাইল এক্সেসরিজ ইত্যাদি অনলাইনে বেচা বিক্রি করে তারা। আপনিও চাইলে এখান থেকে অন্য কিনতে পারেন। এবার চলুন জেনেনিই অনলাইনে শপিং করার কিছু টিপস সম্পর্কে।

অনলাইনে শপিং করার টিপস

সময়ের সাথে সাথে অনলাইনে কেনাকাটা বিশ্ব জুড়ে বেড়েই চলেছে। কেনাকাটার জন্য মানুষ অনলাইনেই আশ্বস্ত হয়ে পড়ছে। বিশ্বের বড় বড় প্রতিষ্ঠানগুলো অনলাইনে তাদের ব্যবসা চালু করছে এবং তাতে মানুষও সাড়া প্রদান করছে।

যেমন অনলাইনে কেনাকাটা করা সহজ এবং সুবিধা তেমনই এখানে অনেক অসুবিধা রয়েছে। অসুবিধা গুলো দূর করার জন্য অনলাইন শপিং করার কিছু টিপস আপনাদের সাথে আলোচনা করব। আশা করি আপনি শেষ পর্যন্ত পড়বেন।

১. বিশ্বস্ত সাইট থেকে শপিং করাঃ

বর্তমান সময়ে ই-কমার্স এর জনপ্রিয়তা বেড়েই চলেছে। যার ফলে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন ওয়েবসাইট তৈরি করছে। আর এদের মধ্যে থেকেই অনেকেই প্রতারণা করার জন্য ফেক ওয়েবসাইট করে বিভিন্ন রকম প্রলোভন দেখিয়ে ব্যবসা করছে। পণ্য অর্ডার করার পরে টাকা দেওয়ার সাথে সাথেই গ্রাহককে ব্লক করছে। তাই ওয়েবসাইট থেকে শপিং করার ক্ষেত্রে সেই ওয়েবসাইট বিশ্বস্ত কিনা তা যাচাই করে কেনাকাটা করা উচিত।

২. ই-কমার সাইডগুলোর URL চেকঃ

যেকোনো ই-কমার্স সাইট থেকে শপিং করার জন্য ঢুকলে অবশ্যই সেই ঠিকানার প্রথমে https দিয়ে শুরু হচ্ছে কিনা তা দেখতে হবে। যদি https দিয়ে শুরু ওয়েবসাইট না হয় তাহলে সে ওয়েবসাইট থেকে শপিং করা বিরত রাখুন।

৩. শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করাঃ

যেকোনো ওয়েব সাইটে শপিং করার ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই একটি একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হবে। একাউন্ট ক্রিয়েট করার সময় একটি পাসওয়ার্ড দিতে হবে যা শক্তিশালী পাসওয়ার্ড হতে হবে। তাহলে আপনি অনেকটাই সুরক্ষিত থাকবেন অনলাইন শপিং করার সময় যখন আপনি টাকা পরিশোধ করবেন তখন আপনার ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড অথবা পাসওয়ার্ড যেন লিখ না হয় সেক্ষেত্রে।

৪. ফ্রি ইন্টারনেট কানেকশনব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবেঃ

অবশ্যই অবশ্যই আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে আপনি যখন অনলাইনে শপিং করবেন তখন যেন কারো ফ্রি ওয়াইফাই ইউজ না করেন। অনেক ক্ষেত্রে ফ্রি ওয়াইফাই এর মাধ্যমে হ্যাকাররা তথ্য হ্যাক করে নিতে পারে। সে ক্ষেত্রে নিজের ইন্টারনেট কানেকশন ব্যবহার করাই ভালো।

৫. পণ্যের মূল্য ও মান যাচাই করে নিনঃ

আপনি খেয়াল করে দেখবেন একটি পণ্য অনেকগুলো ওয়েবসাইটে বিক্রি করে থাকে। আর সেই পণ্যটির দাম বিভিন্ন পেজে বিভিন্ন রকম হয়ে থাকে। তাই আপনাকে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে প্রতিটি ওয়েবসাইটে গিয়ে পন্যের মান ও দাম যাচাই করে তারপরেই পণ্যটি কিনার চেষ্টা করতে হবে। তাহলে আপনি প্রতারণা থেকে বেঁচে যাবেন।

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় অনলাইন শপিং মল বা প্লাটফর্ম যায় বলুন না কেন তা হচ্ছে দারাজ। দারাজ তার যাত্রা শুরু করে ২০১২ সাল থেকে। আর এটি বাংলাদেশ ও মিয়ানমারে একসাথে ২০১৫ সালে যাত্রা শুরু করে। যে বর্তমানে বাংলাদেশের সবচাইতে বড় অনলাইন শপিং প্লাটফর্ম। এখানে জীবনের প্রয়োজনীয় সকল পণ্য বিক্রি করা হয়। এবং অল্প অর্থের বিনিময়ে বিভিন্ন রকমের পণ্য কিনতে পারেন।

শেষ কথাঃ অনলাইনে শপিং করার কয়েকটি বিশ্বস্ত ওয়েবসাইট এবং পেজ

আজকের পোস্টটি মূলত অনলাইনে শপিং করার জন্য যে সকল বিশ্বস্ত ওয়েবসাইট রয়েছে সে সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে। আপনি যদি অনলাইনে কেনা বেচা করতে চান সে ক্ষেত্রে একটি বিশ্বস্ত ওয়েবসাইটের দরকার যা আমরা আপনাদের মাঝে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। আপনি যদি সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়েন তাহলে সম্পূর্ণ বুঝতে পারবেন। আসসালামু আলাইকুম।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ১

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ২

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ৩

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ৪